No icon

'একজন নায়িকা ওনার কোরিওগ্রাফিতে কতটা সুন্দর হয়ে উঠতে পারেন,তা করে দেখিয়েছিলেন মাস্টারজি',সরোজ খানের স্মরণে ঋতুপর্ণা

বলিউডে ফের ইন্দ্রপতন। না বলা দেশে পাড়ি দিলেন বিখ্যাত কোরিওগ্রাফার সরোজ খান। দিন কয়েক আগেই শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন হাসপাতালে। তবে আস্তে আস্তে সেরেও উঠছিলেন বলে জানা যায়। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে আচমকাই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি। বলিউডে তো বটেই, তাঁর খ্যাতি ছিল সারা বিশ্বজুড়ে। বহু তারকার নেপথ্যের কারিগর ছিলেন তিনি। বলিউডের কাছে তিনি পরিচিত সকলের প্রিয় 'মাস্টারজি' নামে। তাঁর প্রয়াণে শোকাহত বলিউড থেকে টলিউড। 'মাস্টারজি'র প্রয়াণে মর্মাহত অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত।

ঋতুপর্ণা একদিকে যেমন বড়পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী পাশাপাশি তেমন একজন অসাধারণ নৃত্যশিল্পী।অল্প সময় হলেও সরোজ খানের সান্নিধ্য পেয়েছিলেন তিনি। সরোজ খানের স্মৃতিচারণায় তাঁর মনে উঁকি দেয় সেসব কথা। 

ঋতুপর্ণা জানান, "এই সম্পূর্ণ বছরটাই শোকের বছর। বহু শিল্পী, সাধারণ মানুষ, শুধু মৃত্যু আর মৃত্যু। এমন একজন মানুষ চলে গেলেন, যিনি একটা যুগের শেষ করে দিয়ে গেলেন। আমরা ছোট থেকে বড় হয়েছি সরোজ খান নামটা শুনে। যাঁরা নাচকে ভালোবাসেন তাঁরা জানেন, উনি নাচের জগতে কত বড় পরিবর্তন এনেছিলেন। নাচকে উনি একটা ক্লাসি জায়গায় নিয়ে গিয়েছিলেন। ক্লাস ও মাস-এর মেলবন্ধন ঘটিয়েছিলেন তিনি। একজন নায়িকা ওনার কোরিওগ্রাফিতে কতটা সুন্দর হয়ে উঠতে পারেন, তা করে দেখিয়েছিলেন। প্রত্যেক নায়িকাকে উনি নবজন্ম দিয়েছিলেন। মাধুরী দীক্ষিত থেকে শ্রীদেবী, মীনাক্ষী শেষাদ্রি সকলেই সরোজজির হাত ধরেই অন্যভাবে উঠে এসেছেন।"

ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের প্রযোজনায় 'ডান্স পে চান্স বলি ভার্সেস টলি'-তে বিচারকের দ্বায়িত্ব সামলেছিলেন সরোজ খান। ৪৫টি পর্বের বিচারক ছিলেন তিনি। ওই শোয়ের বিশেষ পর্বে সরোজ খানের কোরিওগ্রাফ করা গান 'ডোলা রে ডোলা'র সাথে পারফর্ম করেছিলেন ঋতুপর্ণা। সেদিনের অভিজ্ঞতা সম্পর্কে তিনি জানান, "আমি খুব ভয় পেয়েছিলাম। ভেবেছিলাম ওনার সামনে পারফর্ম করতে পারবো না। কিন্তু সেদিন আমায় উৎসাহ দিয়েছিলেন মাস্টারজি। উনি আমায় বলেছিলেন, যে আমি এই নাচটা কীভাবে ভেবেছি, উনি দেখতে চান। এটা আমার কাছে অন্যরকম অভিজ্ঞতা। কিছু জিনিস শিখেছিলাম ওনার কাছে। ওনার সান্নিধ্য পেয়েছিলাম, এটা আমার জীবনে একটা বড় সম্পদ।''

অভিনেত্রী আরো জানান," উনি খুব হাসিখুশি মানুষ ছিলেন। সরোজ খানের মৃত্যু সিনেমা জগতের এক অপূরণীয় ক্ষতি।"

Comment