No icon

করোনা রুখতে শান্তি যজ্ঞ ভারত সেবাশ্রম সংঘের, স্যানিটাইজার ও মাস্ক বিতরণ শুরু

করোণার মহামারী রুখতে এবং মানুষের মধ্যে থেকে আতঙ্ক দূর করে শান্তি ফিরিয়ে আনতে এবার ভারত সেবাশ্রম সংঘের প্রতিষ্ঠাতা স্বামী প্রণবানন্দ মহারাজের সম্মুখে প্রার্থনায় বসলেন সংঘের সন্ন্যাসীরা। করোনার কোন ধরনের সংক্রমণ যাতে ছড়িয়ে না পড়ে তাই ভারত সেবাশ্রম সংঘের দেশ-বিদেশের কার্যালয়গুলিতে মন্দির দর্শন ও প্রসাদ বিতরণ 10 এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছে । এবার বিশ্ব শান্তি এবং বিশ্ব কল্যাণের জন্য প্রার্থনায় বসলেন ভারত সেবাশ্রম সংঘের সন্ন্যাসীরা। রবিবার সকাল আটটা থেকে বারোটা পর্যন্ত টানা চার ঘন্টা প্রার্থনা হয় এবং সন্ধ্যে সাড়ে ছটাথেকে হোমযজ্ঞের মাধ্যমে মানুষের কল্যাণ ও করোনার ভয়াবহতা কাটিয়ে উঠে মানুষের শান্তির জন্য প্রার্থনা করেন সন্ন্যাসীরা। শুরুতেই পৌরাণিক মতে শুদ্ধিকরণ ।গঙ্গা চ যমুনে চৈব গোদাবরী সরস্বতী.. মন্ত্রোচ্চারণের মাধ্যমে আশ্রমের শুদ্ধিকরণ করা হয়। এরপর গুরু মহারাজের কাছে করোনার মতো মারাত্মক ব্যাধির ভয়াবহতা সম্পূর্ণভাবে দূর হয়ে যাওয়ার প্রার্থনা করেন সন্ন্যাসীরা। এদিন সন্ধ্যায় হোম যজ্ঞের মাধ্যমেও সেই প্রার্থনা করা হয়।

সংঘের প্রধান সম্পাদক স্বামী বিশ্বাত্মানন্দ মহারাজ বলেন, চিকিৎসক,গবেষক থেকে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার যেভাবে করোনা মোকাবিলায় একজোট হয়ে কাজ করছেন, সারা বিশ্বব্যাপী যেভাবে করোনার ভয়াবহতা থেকে বাঁচতে লকডাউন করা হয়েছে, তার পাশাপাশি সংঘের সন্ন্যাসীরাও আধ্যাত্মিক শক্তি দিয়ে বিপদ কাটানোর জন্য ভগবানের কাছে প্রার্থনা জানাচ্ছেন।

তিনি বলেন, পৌরাণিক যুগে শত্রুর মোকাবিলায় এই ধরনের শান্তি যোগ্য হতো। সেই পৌরাণিক মতেই ভারত সেবাশ্রম সংঘের দেশ-বিদেশের বিভিন্ন কেন্দ্রে সেই শান্তি যজ্ঞ অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

স্বামীজি জানান, এখনো যারা স্যানিটাইজার ও মাস্ক সংগ্রহ করতে পারেনি তারা ভারত সেবাশ্রম সঙ্গে যোগাযোগ করলে সোমবার থেকে সকাল 10 টা থেকে 12 টা এবং বিকেল চারটে থেকে ছয়টা পর্যন্ত মাস্ক ও স্যানিটাইজার দেওয়া হবে।

Comment